শুক্রবার, ১০ জুলাই ২০২০, ০২:৪০ অপরাহ্ন

বারহাট্টায় পানি বৃদ্ধি পাওয়ায় পানিবন্দি শত শত পরিবার

বারহাট্টা প্রতিনিধি
  • আপডেট টাইম : সোমবার, ২৯ জুন, ২০২০
  • ১০২ বার পঠিত

নেত্রকোণার বারহাট্টায় গত শুক্রবার রাত থেকে টানা চারদিনের বৃষ্টি ও উজান থেকে নেমে আসা ঢলের কারণে বণ্যা পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়েছে।

উপজেলার চিরাম, রায়পুর, বাউশী, আসমা ও সাহতাসহ সাত ইউনিয়নের বিস্তর এলাকা পানিতে তলিয়ে গেছে।

পানিবন্দি হয়ে পড়েছে নীচু এলাকার শত শত পরিবার। বানের পানিতে তলিয়ে গেছে অনেক রাস্তাঘাট। অনেক এলাকার যোগাযোগ ব্যবস্থা ভেঙ্গে পড়েছে।

অসংখ্য পুকুর তলিয়ে গিয়ে মাছ চাষীদের ব্যাপক ক্ষতির আশংকা দেখা দিয়েছে।

বিভিন্ন সূত্র জানায়, টানা বৃষ্টি ও উজানের পানির কারণে উপজেলার রায়পুর ইউনিয়নের সেমিয়া, শিমুলিয়া, দুধকোড়া, ধলপুর, কর্নপুর, চিরাম ইউনিয়নের যাদবপুর, চিরাম, রামারবাড়ি, নয়াপাড়া, খৈকোনা, খাসিকোনা, বাউশি ইউনিয়নের চানপুর, ধোবাহালা, হরিয়াতলা, হাজীগঞ্জ, আসমা ইউনিয়নের রৌহা, মনাষ, গোড়ল, গাভারকান্দা, সাহতা ইউনিয়নের বোয়ালজানা, সামানিয়াকান্দা, জয়ডহর, গোদাডহর, সিংধা ইউনিয়নের নরুল্লারচর, বেঙ্গালা, আশিয়ল প্রভৃতিসহ অনেক গ্রামের শত শত বাড়ীঘরে পানি ঢুকে পড়েছে।

সৃষ্টি হয়েছে জলাবদ্ধতা। এসব এলাকায় এমনিতেই কাঁচা রাস্তা। তাও পানিতে ডুবে যাওয়ায় মানুষের চলাচলে ভোগান্তি বেড়েছে।

নরুল্লারচর প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক মোঃ খায়রুল কবীর বলেন, সোমবার বিদ্যালয়টির ভিটি পর্যন্ত পানি এসেছে। পানি বৃদ্ধি অব্যাহত আছে।

চিরাম ইউনিয়নের পুটাকিয়া গ্রামের কামাল আহম্মেদ বলেন, জলাবদ্ধতার কারণে এলাকায় গরু-ছাগল নিয়ে কৃষকরা বিপাকে পড়েছে।

রায়পুর ইউনিয়নের রয়েল নেক্সাস ক্লাবের সেক্রেটারী ফয়সাল আহমেদ চৌধুরী বাপ্পী বলেন, কংসনদ উপচে এলাকার বিভিন্ন গ্রামের শত শত বাড়িতে পানি ঢুকে পড়েছে। তেঘরিয়াবাজারের অর্ধেক ডুবে গেছে। পানি বৃদ্ধি অব্যাহত আছে।

রৌহা গ্রামের কৃষক ও মৎস্য চাষী জসিম উদ্দিন বলেন, আমার পুকুরের পাড়গুলো পানিতে নিমজ্জিত হয়ে গেছে।

বারহাট্টা উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মুহাম্মদ মাইনুল হক কাসেম বন্যা কবলিত বিভিন্ন এলাকা পরিদর্শন করেছেন। তিনি বলেন, শত শত পরিবার পানিবন্দি হয়ে পড়েছে। মৎস্য চাষীদের অধিক ক্ষতির আশংকা করা হচ্ছে।

শেয়য়ার করুন..

এ জাতীয় আরও সংবাদ

© All rights reserved © 2020 jonopriya.com
কারিগরি সহযোগিতায়-SHAHIN প্রয়োজনে:০১৭১৩৫৭৩৫০২ purbakantho
themesba-lates1749691102