বুধবার, ১১ ডিসেম্বর ২০১৯, ১২:০৫ পূর্বাহ্ন

ডাক্তার নার্সের অবহেলায় আরও এক প্রসূতির মৃত্যু

ডাক্তার নার্সের অবহেলায় আরও এক প্রসূতির মৃত্যু

নেত্রকোনা প্রতিনিধিঃ

নেত্রকোনা আধুনিক সদর হাসপাতালে অপারেশনের পর ২৪ ঘন্টার ব্যবধানে ডাক্তার ও নার্সের অবহেলায় বুধবার বিকেলে ময়মনসিংহ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ইয়াসমিন আক্তার(২৮) নামে আরও এক প্রসূতির মৃত্যুর অভিযোগ উঠেছে।

মৃত প্রসূতি নেত্রকোনা পৌর সভার ৯নং ওয়ার্ডের বঙ্গবন্ধু মোড় দক্ষিন কাটলীর বাসিন্দা লোকমান মিয়ার স্ত্রী। এ ঘটনায় প্রসূতির স্বজনদের মধ্যে ক্ষোভ বিরাজ করছে।

অভিযোগে জানা গেছে, নেত্রকোনা পৌর সভার বঙ্গবন্ধু মোড় দক্ষিণ কাটলীর লোকমান মিয়ার স্ত্রী ইয়াসমিন আক্তর প্রসব বেদনা শুরু হলে মঙ্গলবার নেত্রকোনা আধুনিক সদর হাসপাতালের প্রসূতি ওয়ার্ডে ভর্তি করা হয়।

ওইদিন দুপুরে নেত্রকোনা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের সহকারী অধ্যাপক ও গাইনী সার্জন ডা. রঞ্জন কুমার কর্মকার তার অপারেশন করেন। পরে তার অবস্থার অবনতি হলে বুধবার তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ময়মনসিংহ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়।

বিকেল তিনটার দিকে সেখানে ইয়াসমিন আক্তার মারা যান। প্রসূতির মৃত্যুতে তার পরিবারে ও এলাকাবাসীর মধ্যে অসন্তোষ ও ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে। তারা ওই সময় হাসপাতালে কর্তব্যরত ডাক্তার ও নার্সদের অবহেলার বিষয়টি খতিয়ে দেখে শাস্তিমূলক ব্যবস্থার দাবী জানান।

প্রসূতির স্বজন নেত্রকোনা পৌর সভার ৯নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর হেলাল উদ্দিন শেখ হেলাল ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, দরিদ্র মানুষ সরকারি সুবিধে পাওয়ার জন্য হাসপাতালমূখি হচ্ছে। এতে করে স্থানীয় ক্লিনিকগুলোর ব্যবসা কমে যাওয়ায় রোগীদের ঠিকমত সেবা দিচ্ছেনা হাসপতালের ডাক্তাররা।

কারন হাসপাতালে কর্মরত বেশিরভাগ ডাক্তার বেসরকারি ক্লিনিকের সাথে জড়িত। তাদের অবহেলার কারনে রোগীরা সরকারি সুযোগ সুবিধে পাচ্ছে না।

এর আগে মঙ্গলবার সন্ধ্যায় নেত্রকোনা আধুনিক সদর হাসপাতালে অপারেশন হওয়ার পর জেলার মোহনগঞ্জের গাগলাজোড় ইউনিয়নের বরান্তর গ্রামের জিয়া উদ্দিন চৌধুরীর মেয়ে প্রসূতি লিমা চৌধুরী মারা যান। স্বজনদের অভিযোগ হাসপাতালে কর্তব্যরত আয়া ও নার্সদের অবহেলায় তার মৃত্যু হয়েছে।

নেত্রকোনা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের সহকারী অধ্যাপক ও গাইনী সার্জন ডা. রঞ্জন কুমার কর্মকারের সাথে একাধিকবার তার মোবাইলে যোগাযোগের চেষ্টা করেও কথা বলা সম্ভব হয়নি। তিনি মোবাইল রিসিভ করেননি।

নেত্রকোনার সিভিল সার্জন ডা. মো. তাজুল ইসলাম খান বলেন, শুনেছি ডাঃ রঞ্জন কর্মকার ওই প্রসূতির অপারেশন করেছিলেন। তার স্বাস্থ্যের অবস্থার অবনতি হলে ময়মনসিংহ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়। পরে অপারেশন থিয়েটারে নেয়ার পর তিনি মারা যান। বিষয়টি খতিয়ে দেখা হচ্ছে।

নেত্রকোনা মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. তাজুল ইসলাম জানান, এ ব্যাপারে থানায় কেউ কোন অভিযোগ করেনি। অভিযোগ পেলে যথাযথ আইনগত ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

ভাল লাগলে শেয়ার করেন




© All rights reserved © 2017 jonopriya.com
Design & Developed BY jonopriya.com
error: Content is protected !!