শুক্রবার, ১৪ অগাস্ট ২০২০, ০৭:৫৫ অপরাহ্ন
শিরোনাম :

গোপালগঞ্জে গৃহবধূর ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার, স্বামী আটক

গোপালগঞ্জ প্রতিনিধি
  • আপডেট টাইম : বৃহস্পতিবার, ৩০ জুলাই, ২০২০
  • ৩৩ বার পঠিত
গোপালগঞ্জে নিখোঁজের দুই দিন পর কলেজ ছাত্রের মরদেহ উদ্ধার
গোপালগঞ্জে নিখোঁজের দুই দিন পর কলেজ ছাত্রের মরদেহ উদ্ধার

গোপালগঞ্জের কাশিয়ানীতে পিংকি বেগম (২২) নামে এক গৃহবধূর ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। তবে পরিবারের অভিযোগ গৃহবধূর স্বামী ও তার শ্বশুরবাড়ির লোকজন শ্বাসরোধ এবং নির্যাতন করে হত্যা করেছে।

আজ বৃহস্পতিবার দুপুরে উপজেলার দক্ষিণ ফুকরা গ্রামের শ্বশুরবাড়ি থেকে ওই গৃহবধূর মরদেহ উদ্ধার করা হয়। এ ঘটনায় গৃহবধূর স্বামী জুয়েল মোল্যাকে (২৪) আটক করেছে পুলিশ।

নিহত গৃহবধূ পিংকি বেগম উপজেলার দক্ষিণ ফুকরা গ্রামের জুয়েল মোল্যার স্ত্রী ও একই উপজেলার আড়ুয়াকান্দি গ্রামের নজির সরদারের মেয়ে।

কাশিয়ানী অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আজিজুর রহমান জানান, শ্বশুরবাড়ির একটি বসতঘরের আড়ার সাথে গলায় ওড়না দিয়ে পেঁচানো অবস্থায় এক গৃহবধূর মরদেহ ররেয়ে এমন খবর পাই। পরে সেখানে নিয়ে নিহতের মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য গোপালগঞ্জ ২৫০-শয্যাবিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়।

তিনি আরো জানান, এ ঘটনায় নিহতের স্বামীর জুয়েলকে আটক করা হয়েছে। তবে ধারনা করা হচ্ছে শ্বাসরোধ করে ওই গৃহবধূকে হত্যা করা হয়েছে। ময়নাতদন্তের রিপোর্ট পেলেই মৃত্যুর কারণ নিশ্চিত হওয়া যাবে।

নিহত পিংকির ভাই সুমন সরদার বলেন,তিন বছর আগে পিংকির সাথে  একই উপজেলার দক্ষিণ ফুকরা গ্রামের জুয়েল মোল্যার সাথে বিয়ে হয়। তাদের সংসারে একটি পুত্র সন্তান রয়েছে। বিয়ের পর থেকে যৌতুকসহ নানা কারণে জুয়েল ও তাঁর শ্বশুরবাড়ির লোকজন পিংকির সাথে খারাপ আচরণ করে। বুধবার দিনগত রাত আড়াই টার দিকে পিকিং আত্মহত্যা করেছে বলে জুয়েল আমাকে ফোন করে জানায়। তবে আমার বোনকে তার স্বামী ও শ্বশুরবাড়ির লোকজন পরিকল্পিতভাবে হত্যা করেছে। গলায় ওড়না পেঁচিয়ে আত্মহত্যা বলে চালিয়ে দেয়ার চেষ্টা করছে।

শেয়য়ার করুন..

এ জাতীয় আরও সংবাদ




© All rights reserved © 2020 jonopriya.com
কারিগরি সহযোগিতায়-SHAHIN প্রয়োজনে:০১৭১৩৫৭৩৫০২ purbakantho
themesba-lates1749691102