বুধবার, ০৮ জুলাই ২০২০, ০৮:৩৫ অপরাহ্ন

করোনা আক্রান্ত ব্যক্তির তবারক বিতরণ, অবশেষ লকডাউন

গোপালগঞ্জ প্রতিনিধি
  • আপডেট টাইম : মঙ্গলবার, ১৯ মে, ২০২০
  • ১০৮ বার পঠিত
করোনা আক্রান্ত ব্যক্তির তবারক বিতরণ
করোনা আক্রান্ত ব্যক্তির তবারক বিতরণ

গোপালগঞ্জের কাশিয়ানীতে করোনা আক্রান্ত এক রোগী তার মৃত ভাইয়ের নামে তবারক বিতরন করেছেন। এঘটনায় ১৫০ পরিবারকে লকডাউন করা হয়েছে।

সোমবার দুপুরে জেলার কাশিযানী উপজেলার ওড়াকান্দি ইউনিয়নের খাগড়াবাড়িয়া গ্রামে এ তবারক বিতরনে এ ঘটনা ঘটে।

এ ঘটনায় সোমবার (১৮ মে) বিকাল থেকে আজ মঙ্গলবার (১৯ মে) সকালে পয্যন্ত ওই গ্রামে ঘুরে ঘুরে ১৫০ পরিবারকে লকডাউন করে উপজেলা নির্বাহী কমর্কর্তা মো: সাব্বির আহমেদ।

জানাগেছে, গোপালগঞ্জের কাশিয়ানী উপজেলার ওড়াকান্দি ইউনিয়নের খাগড়াবাড়িয়া গ্রামের এক ব্যক্তি ঢাকা থেকে আসার পর গত শনিবার (১৬ মে) করোনা উপসর্গ নিয়ে কাশিয়ানী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নমুনা টেস্ট করতে দেন।

পরের দিন তিনি ব্যক্তি উদ্যোগে প্রশাসনকে না জানিয়ে তার মৃত ভাইয়ের মিলাদ অনুষ্ঠানের আয়োজন করে। এসময় প্রায় সাড়ে পাঁচ’শ প্যাকেটজাত তবারক দেড়’শ বাড়িতে নিজ হাতে বিতরণ করেন।

পরবর্তীতে ১৭ মে (রবিবার) রাতে কাশিয়ানী উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার-পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. মো: কাইয়ূম তালুকদার তার শরীরে করোনা পজিটিভ বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

এ ঘটনাকে কেন্দ্র করে সোমবার (১৮ মে) দুপুরে কাশিয়ানী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মো: সাব্বির আহমেদ করোনা পজিটিভ ব্যক্তির বাড়িতে যান। পরে তিনি সোমবার (১৮ মে) বিকাল থেকে আজ মঙ্গলবার (১৯ মে) সকাল পয্যন্ত করোনা পজিটিভ ব্যক্তি নিজ হাতে যে পরিবারগুলোকে তবারক পৌঁছে দিয়েছেন সে সকল দেড়’শ পরিবারকে লকডাউনের আওতায় আনেন।

এ ঘটনার পর থেকে এলাকায় করোনা আতংক ছড়িয়ে পড়েছে। বিষয়টি এলাকায় চাঞ্চল্যের সৃষ্টি করেছে।

করোনা আক্রান্ত ওই ব্যক্তি ভূল স্বীকার করে বলেন, কাজটি করা তার ঠিক হয়নি, ভুল হয়ে গেছে।

কাশিয়ানী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো: সাব্বির আহমেদ বলেন, করোনা পজেটিভ রোগী গত চারদিন আগে তার ভাই মারা যাওয়ায় ঢাকা থেকে বাড়িতে এসেছেন। গত ১৬ মে তিনি উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে করোনা টেস্টের জন্য নমুনা দিয়ে আসেন। গত রবিবার (১৭ মে) তিনি নিজ উদ্যোগে আমাদের না জানিয়ে মিলাদ অনুষ্ঠানের আয়োজন করেন এবং দেড়’শ পরিবারের মাঝে সাড়ে পাঁচশত প্যাকেটজাত তবারক বিতরণ করেন।

তিনি আরো বলেন, এলাকাবাসীর নিরাপত্তার কথা চিন্তা করে আমরা দেড়’শ পরিবারকে লকডাউনের আওতায় এনেছি পাশাপাশি এলাকার দুইটি মসজিদের মাইকে ইমাম সাহেবদের মাধ্যমে লকডাউনের বিষয়টি ঘোষণা করে এলাকার যে সকল মুসল্লীগণ নামাজ পড়তে মসজিদে আসেন তাদের আপাতত বাড়িতে নামাজ পড়ার জন্য ও বাড়িতে থাকার জন্য বিনীতভাবে অনুরোধ করেছি।

শেয়য়ার করুন..

এ জাতীয় আরও সংবাদ

© All rights reserved © 2020 jonopriya.com
কারিগরি সহযোগিতায়-SHAHIN প্রয়োজনে:০১৭১৩৫৭৩৫০২ purbakantho
themesba-lates1749691102