রবিবার, ১৭ নভেম্বর ২০১৯, ০৪:১১ পূর্বাহ্ন

ও মাঝি ভাই

ও মাঝি ভাই

অসিত সরকার

ও মাঝি ভাই যাচ্ছি কোথায়, নীলাদ্রির পানে।

হওয়রের সে বিশাল জল যে, ভয় আনে মোর মনে।

আকাশ মাঝে কালো মেঘের, অভিমানী রূপ।

বাতাস মাঝে শ শ শব্দ, ভয় করছে খুব।

ও মাঝি ভাই যাচ্ছি কোথায়, উজান গায়ে দিকে।

সবুজ ঘেরা পাহাড় মাঝে, মেঘমালা হাসে।

রৌদ্রের সাথে মেঘমালা দারুণ খেলা করে,

অভিমানে মেঘমালা বৃষ্টি হয়ে পরে।

ও মাঝি ভাই এই গুলো কি, মৎস্য রানীর দল,

সবাই মিলে করছে খেলা, পেয়ে নতুন জল।

দলভেদে ঘুরে বেড়ায়, জলাশয়ের মাঝে।

নানান রঙে রঙ্গিন হয়ে, ভিন্ন ভাবে সাজে।

ও মাঝি ভাই এই গুলো কি, হিজল গাছের মত,

পুরো গাছটি ডুবে আছে, মাথা করে নত।

গাছের উপর বক মশাই ধ্যান করছে খুব,

তাহার মাঝে ফুটে ওঠে শিকারী পাখি রূপ।

এক পায়ে বক মশাই, আছে তিনি দাঁড়া,

ধরবে মাছ করবে শিকার, যদি পায় সারা।

ও মাঝি ভাই, প্রভাত গেল দুপুর এলো,

মধ্যান্ন যে এসে গেল খাবার খাব চল,

খাবার খাওয়ার কথা কি তোমার, মনে আছে বল।

নুন মরিচ পান্তা ভাতে, মাছের ভাজি পিঁয়াজ সাথে,

মজা করে খাব।

খাওয়ার পর বিশ্রাম করে, সামনের দিকে যাব।

ও মাঝি ভাই কি দেখা যায়, হাওর রানীর প্রাসাদ।

মাঝি ভাই হেসে বলে, এটি ওয়াচ-টাওয়ার।

আমি বললাম মাঝি ভাই, সকল কিছু বুঝিয়ে আমায় বল।

মাঝি বলে চল ভাই ওয়াচ-টাওয়ারে চল।

দেখতে গেলাম ওয়াচ-টাওয়ার, দেখতে পেলাম সব,

সকল কিছু সৃষ্টি করেছে, আমার প্রিয় রব।

ও মাঝি ভাই কি যে হল, বিকাল গেল সন্ধ্যা এলো।

পাখপাখালি নিড়ে গেল, অন্ধকার যে ঘিরে নিল।

সন্ধ্যা বাতি জ্বালিয়ে তুমি কর আলোকপাত,

বাড়ির পথে চল এখন দেখবো সোনালী প্রভাত।

ও মাঝি ভাই যাচ্ছি এবার, আসব আবার ফিরে,

কত সপ্ন আছে আমার এই প্রকৃতি ঘিরে।

আশা করি দেখা হবে, দেখব আবার সব।

যদি আমায় বাচিয়ে রাখেন, আমার প্রিয় রব।

ভাল লাগলে শেয়ার করেন




© All rights reserved © 2017 jonopriya.com
Design & Developed BY jonopriya.com
error: Content is protected !!